NATIONAL
Prime Minister Sheikh Hasina said that by ensuring education, health and other basic rights for the large number of people in the world, they should be converted into public resources || প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বের বিপুল সংখ্যক জনগোষ্ঠীর জন্য প্রয়োজনীয় শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও অন্যান্য মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করার মাধ্যমে তাদেরকে জনসম্পদে রূপান্তর করতে হবে
সংবাদ সংক্ষেপ
কিশোর গ্যাং নিয়ন্ত্রণে পুলিশের পাশাপাশি অভিভাবকদের সচেতন থাকার আহ্বান আইজিপির নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদের দেশপ্রেমের শিক্ষা দিতে হবে : প্রতিমন্ত্রী শফিকুর রহমান চৌধুরী উপজেলা নির্বাচন || কোম্পানীগঞ্জে তিন বিএনপি নেতা বহিষ্কার সিকৃবিতে ওয়াপসার কর্মশালায় তথ্য প্রকাশ : সিলেটে ডিমের ঘাটতি দৈনিক ২৫ লাখ স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে আধুনিক শিল্পায়নের গুরুত্ব অপরিসীম : বিসিক চেয়ারম্যান মাধবপুরে জায়গা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে হামলা ও অগ্নিসংযোগের অভিযোগ জঙ্গি ও সন্ত্রাসী তৎপরতা সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে : সুনামগঞ্জে আইজিপি চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন জামালগঞ্জ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান মহিলা ঐক্য পরিষদের কমিটির পরিচিতি সভা জকিগঞ্জে মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে এক কিশোরের মৃত্যু শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে সিকৃবি ছাত্রলীগের শোভাযাত্রা ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগর থেকে ৯৮৯০ পিস ইয়াবাসহ একজনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব ফেসবুকে ও ইউটিউবে মুক্ত হলো শাল্লার তরুণ সাংবাদিক বিপ্লবের লেখা গান ঝুঁকিমুক্ত আর্থিক ব্যবস্থার লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু জীবন বীমা কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠা করেন : মেয়র শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে মহানগর আ লীগের দোয়া মাহফিল আইজিপি চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন সুনামগঞ্জ আসছেন শুক্রবার মাথা নত না করে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল থাকি : শফিক চৌধুরী

হাওরজুড়ে ধান আর ধান || বোরোর বাম্পার ফলন || শাল্লায় ফসল কাটা নিয়ে দুশ্চিন্তায় কৃষকরা

  • বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪

হাবিবুর রহমান হাবিব, শাল্লা : ‘আট কিয়ার জমিন করছি। কয়জন মিইল্লা রংপুর থাকি মেশিন আনার চেষ্টা করছিলাম। কাইল রাইতেও কথা অইছে; কিন্তু আইজ সকাল থাকি আর ফোন ধরের না হারভেস্টার মালিক। ইবায় ধান পাকি গেছে। দাওয়ালও পায়রাম না-কোনো সুবিধা করতাম পাররাম না। মিশিনের লাগি হন্যি অইয়া ঘুররাম-পায়রাম না।’
হাওর সমৃদ্ধ সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার ভান্ডাবিল হাওরপাড়ের হবিবপুর গ্রামের প্রান্তিক কৃষক নীতিশ পুরকায়স্থ মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল দুপুরে চলতি বোরো মৌসুমে ধান কাটার শ্রমিক সংকটের কারণে সোনার ধান ঘরে তোলা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠার বর্ণনা দিতে গিয়ে ভাটিবাংলার প্রচলিত ভাষায় কথাগুলো বলছিলেন।
এ সময় হবিবপুর নোয়াগাঁওয়ের কৃষক প্রসূন কান্তি দাস জানালেন, তিনি এক হাল (১২ কেয়ার বা ৪ একর) জমিতে ফসল ফলিয়েছেন; কিন্তু এক কেয়ার জমির ফসলও কাটতে পারেননি। দাওয়াল নেই। বড় কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিনের জন্য আনন্দপুর এসেও পাননি।
আনন্দপুরের কৃষক রাধেশ দাস বললেন, হারভেস্টার মেশিন কাগজে অনেক আছে; কিন্তু বাস্তবে তেমন নেই।
কৃষকরা জানান, আগে ফরিদপুর, যশোর, কিশোরগঞ্জ, পাবনা, গোপালগঞ্জ, সিরাজগঞ্জ, রংপুর, দিনাজপুর, কুমিল্লা ও শেরপুরসহ দেশের বিভিন্ন জেলা থেকে ধান কাটা শ্রমিকরা আসতেন শাল্লাসহ হাওর এলাকার বিভিন্ন উপজেলায়; কিন্তু এখন আসেননা। বিকল্প হিসেবে সরকার ৭০ শতাংশ ভর্তুকি দিয়ে এলাকার কৃষকের ফসল কাটার জন্য কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দিয়েছে। এগুলোর বেশির ভাগের হদিস নেই। অথচ আবহাওয়া খারাপ করলে বিপদ-মহাবিপদ নেমে আসার আশংকা আছে।
শাল্লা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুস ছাত্তার জানালেন, ৯০ কেয়ার জমির ধান কাটানো নিয়ে দুশ্চিন্তায় আছেন। উপজেলা কৃষি অফিস আরও হারভেস্টার মেশিন বরাদ্দ দিতে উর্ধ্বতন কতৃর্পক্ষকে চিঠি দিয়েছিল; কিন্তু পাওয়া যায়নি।
এক ব্লক সুপার ভাইজার জানান, তার ব্লকে ৫টি কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন কাগজেপত্রে রয়েছে; কিন্তু বাস্তবে ৩টিই নষ্ট। তবে অন্য জেলা থেকে হারভেস্টার মেশিন আসা শুরু হয়েছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মাসুদ তুষার জানালেন, কাগজেপত্রে শাল্লায় ৪৯টি বড় হারভেস্টার মেশিন রয়েছে; কিন্তু বাস্তব ভিন্ন চিত্র। কয়েকটি মেশিন বিকল। বহু কৃষক অভিযোগ করেছেন, কিছু মালিক অধিক মূল্য উপজেলার বাইরে তাদের হারভেস্টার মেশিন বিক্রি করে দিয়েছেন। এ ব্যাপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest