JUST NEWS
DURGA PUJA THE BIGGEST FESTIVAL OF TRADITIONAL BENGALIS ACROSS THE COUNTRY INCLUDING SYLHET HAS STARTED.
সংবাদ সংক্ষেপ
শ্রীমঙ্গলে কুমারী পূজার আনন্দে মেতেছিলেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা মধ্যনগরে বংশীকুণ্ডা ইউনিয়ন যুবদলের পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত সিলেট কেন্দ্রীয় শহিদমিনার পুত-পবিত্রতা অক্ষুন্ন রেখেই মাথা উঁচু করে দাড়িয়ে থাকলো Kumari Puja held at Habiganj Ramakrishna Mission and Sewashram সুনামগঞ্জে দুর্গাবাড়িতে ভক্তদের পুষ্পাঞ্জলি অর্পণ ও মহাপ্রসাদ বিতরণ মাধবপুরে দুর্গাপূজার মহাঅষ্টমীতে মন্দিরগুলোতে ভক্তদের ঢল মহাঅষ্টমীতে হবিগঞ্জ রামকৃষ্ণ মিশন ও সেবাশ্রমে কুমারী পূজায় দেবীরূপে ৮ বছরের মিষ্টু সিকৃবিতে উপাচার্যের অতিরিক্ত দায়িত্ব গ্রহণ করলেন ড মেহেদী হাসান কাউন্সিলর তৌফিক বকস লিপনের উদ্যোগে শাড়ি ও নগদ অর্থ বিতরণ সিসিকের নবগঠিত ওয়ার্ডগুলোর জনদুর্ভোগ লাঘবের আহ্বন পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে নিহতদের পরিবারকে মৌলভীবাজার দুর্গাবাড়ির আর্থিক সহায়তা সিলেট প্রিমিয়ার ডিভিশন ফুটবল লীগ ২০২২-২৩ শুরু ৬ অক্টোবর || অংশ নিচ্ছে ১০টি দল জামালগঞ্জে বিভিন্ন পূজামণ্ডপ পরিদর্শন করলেন এমপি রতন হবিগঞ্জে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব হাসানুজ্জামান মাধবপুরে বৃষ্টি উপেক্ষা করে সপ্তমি পূজা দেখতে ভক্তদের ভিড় মৌলভীবাজারে ১ হাজার ৭টি পূজামণ্ডপ নিয়ে শারদীয় দুর্গোৎসব

সিলেটের সংস্কৃতি ও নাট্যকর্মীদের দাবিতে শারদা স্মৃতি ভবন খুলে দেওয়া হচ্ছে নভেম্বরে

  • বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২

হেনা মমো : সিলেটের সংস্কৃতি ও নাট্যকর্মীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সুরমাপারে সাহিত্য-সংস্কৃতি চর্চার এক সময়কার প্রাণকেন্দ্র ঐতিহ্যবাহী শারদা স্মৃতি ভবন (সারদাহল) খুলে দেওয়া হচ্ছে। তবে ঠিক এখনই নয়-নভেম্বর মাসে। আন্দোলনকারীদের আশা, আর কথার বরখেলাপ হবেনা।
মঙ্গলবার বিকেলে শারদা স্মৃতি ভবন সংস্কৃতিচর্চার জন্য খুলে দেওয়ার দাবিতে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট আয়োজিত প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এ নিশ্চয়তা দেন।
সম্মিলিত নাট্য পরিষদের ৩৮তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে অন্যান্য বছরের মতো আনন্দ আয়োজন ও নাট্যোৎসব না করে এবার এই সাংস্কৃতিক সমাবেশের আয়োজন করা হয়।
শারদা স্মৃতি ভবনের সামনে বিকেল ৪টা থেকে শুরু হয় গান, কবিতা, নৃত্য ও নাটক পরিবেশন। এর ফাঁকে ফাঁকে ছিল কর্মসূচির সঙ্গে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার নেতৃবৃন্দের সংহতি প্রকাশ। খবর পেয়ে ছুটে আসেন সিসিক মেয়রও। ফলে প্রতিবাদী কর্মসূচিটি আরও ঝাঁঝালো হয়ে উঠে।
প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বক্তারা শারদা স্মৃতি ভবনকে জঞ্জালমুক্ত ও এখান সকল অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করে সংস্কৃতিচর্চার জন্যে অবিলম্বে খুলে দেওয়ার দাবি জানান।
সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশে বক্তব্য দেন প্রবীণ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা ব্যারিস্টার মো আরশ আলী, সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল আজাদ, জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ইকরামুল কবির, ইমজা সভাপতি মইনুদ্দিন মঞ্জু,
সিসিক কাউন্সিলর তৌফিক বক্স লিপন, রকিবুল ইসলাম ঝলক, সৈয়দ তৌফিকুল হাদি, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মোকাদ্দেছ বাবুল, সাংস্কৃতিক সংগঠক শামসুল বাছিত শেরো, নিরঞ্জন দে যাদু, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের কেন্দ্রীয় সদস্য সামছুল আলম সেলিম, জেলা সাধারণ সম্পাদক গৌতম চক্রবর্তী, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থা, সিলেট বিভাগের সাধারণ সম্পাদক নীলাঞ্জনা যুঁই, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন-বাপা সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম ও সিলেট ফটোগ্রাফিক সোসাইটির সভাপতি ফরিদ আহমদ।
এছাড়াও সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সুনির্মল কুমার দেব মীন, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের প্রধান পরিচালক অরিন্দম দত্ত চন্দন, কবি এ কে শেরাম, বিশিষ্ট রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী রানা কুমার সিন্হা, উদীচী সিলেটের সভাপতি এনায়েত হাসান মানিক, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সাবেক সভাপতি সৈয়দ মনির হেলাল, সাংস্কৃতিক সংগঠক বিভাষ শ্যাম যাদন, প্রিন্স সদরুজ্জামান, নীলাঞ্জন দাস টুকু, খোয়াজ রহিম সবুজ, উজ্জ্বল দাস, সঙ্গীতশিল্পী অনিমেষ বিজয় চৌধুরী, ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শেখ আশরাফুল আলম নাসির, ইনোভেটর সমন্বয়ক প্রভাষক প্রণব কান্তি দেব, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের নির্বাহী সদস্য তনু দীপ, বাংলাদেশ গ্রাম থিয়েটারের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী সাইমুম আনজুম ইভান, সম্মিলিত নাট্য পরিষদের যুগ্মসাধারণ সম্পাদক সুপ্রিয় দেব শান্ত, নির্বাহী সদস্য ফারজানা সুমি, দিবাকর সরকার শেখর প্রমুখ।
প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশে সিসিকি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত উপস্থিত থেকে সংস্কৃতিকর্মীদের অভিযোগ শোনেন।
পরে বলেন, শারদা স্মৃতি ভবন রক্ষার আন্দোলন অবশ্যই যুক্তিসঙ্গত। আগামী নভেম্বর মাসের মধ্যে সংস্কৃতি ও নাট্য কর্মীদের দাবি পূরণ করে শারদা স্মৃতি ভবন সংস্কৃতিচর্চার জন্য খুলে দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, কোনো ঐতিহ্য-স্থাপনা ধ্বংস বা মুছে ফেলা কারোরই কাম্য নয়। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানগুলোতে সিটি কর্পোরেশনের সহযোগিতা থাকবে।
মেয়র পীর হবিবুর রহমান পাঠাগারও নভেম্বরের মধ্যে চালু করার প্রতিশ্রুতি দেন।
তবে শারদা স্মৃতি ভবন ও পীর হবিবুর রহমান পাঠাগার এতদিন ধরে বন্ধ থাকার কারণ হিসেবে সরকারি কিছু অঙ্গীকার বাস্তবায়ন না করাকে তিনি দায়ী করেন।
সাংস্কৃতিক সমাবেশে প্রতিবাদী গান ও নাটক পরিবেশন করে উদীচী সিলেট, থিয়েটার বাংলা, থিয়েটার মুরারীচাঁদ, নৃত্যশৈলী এবং সঙ্গীতশিল্পী পল্লবী দাস, আশরাফুল ইসলাম অনি, মারজান ও সাগর।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More
স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest