যুক্তরাষ্ট্রে বঙ্গবন্ধু সম্মেলনে দেশে দুর্নীতি নির্মূলে কঠোর পদক্ষেপ দাবি

Published: 24. Nov. 2021 | Wednesday

স্বীকৃতি বড়ুয়া, নিউইয়র্ক : যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ আয়োজিত বঙ্গবন্ধু সম্মেলনে বক্তারা অভিমত রেখেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান চারটি মূলনীতি গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, ধর্মনিরপেক্ষতা ও বাঙালি জাতীয়তাবাদের মধ্য দিয়ে একটি সুখী সমৃদ্ধ সোনার বাংলার স্বপ্ন দেখেছিলেন। বাংলাদেশে সাম্প্রদায়িকতা ও দুর্নীতির নির্মূল না করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। তাই সাম্প্রদায়িকতা ও দুর্নীতি নির্মূলে কঠোর পদক্ষেপ নিতে হবে।
বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তি ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে শনিবার অনলাইনে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংগঠনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ড নুরুন নবীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক স্বীকৃতি বড়ুয়ার সঞ্চালনায় স্মারক বক্তব্য রাখেন, প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ। প্রধান অতিথি ছিলেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। বিশেষ অতিথি হিসেবে সংযুক্ত ছিলেন, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের চেয়ারম্যান, রাশিয়া বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক তমাল পারভেজ, কানাডা বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আমিন মিয়া, যুক্তরাজ্য বঙ্গবন্ধু পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা লোকমান হোসেন, সহসভাপতি সাংবাদিক মোহাম্মদ মকিস মনসুর ও সাধারণ সম্পাদক এম আলিমুজ্জামান এবং অস্ট্রেলিয়া বঙ্গবন্ধু পরিষদের উপদেষ্টা মো মুনীর হোসেন। শুরুতেই মহান মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহীদ, বঙ্গবন্ধু ও পনেরোই আগস্টের সকল শহীদ এবং তেসরা নভেম্বরের শহীদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।
এরপর যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের টাইটেল স্পন্সরে নির্মিত ‘ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু’ সংগীতচিত্র প্রদর্শন করা হয়।
সভাপতি হিসেবে স্বাগত বক্তব্যে একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক বীর মুক্তিযোদ্ধা ড নূরুন নবী বলেন, এই সম্মেলনের উদ্দেশ্য বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও স্বপ্ন দেশে ও প্রবাসে শুধু বাঙালিদের কাছে নয়, সারা বিশ্বের মানুষের কাছে ছড়িয়ে দেওয়া।
প্রবীণ সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ তার স্মারক বক্তৃতায় বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্র এবং বাংলাদেশ রাষ্ট্রের মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এক ও অভিন্ন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল একটি সোনার বাংলার, যেখানে একটি ন্যায়ভিত্তিক অসম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠিত থাকবে, একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা থাকবে। সেই বাংলাদেশ দেখতে চাই, যেখানে বঙ্গবন্ধুর প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শিত হবে; কিন্তু বঙ্গবন্ধুর নাম নিয়ে যদি এমন এমন কাণ্ড হয়, যা তার আজীবন লালিত আদর্শ ও স্বপ্নের বিপরীত, তাহলে এই মহাপুরুষের মর্যাদা হানি হয়।
তিনি জানান, এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংক দেশব্যাপী বঙ্গবন্ধু কর্নার খুলে বইপুস্তকের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে জানার সুযোগ করে দিচ্ছে।
প্রবীণ এই সাংবাদিক বলেন, সাম্প্রদায়িকতা বাংলাদেশ থেকে উৎখাত করতে হবে। সাম্প্রদায়িকতা কোন সভ্য সমাজ বা দেশে গ্রহণযোগ্য নয়।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ড আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, বঙ্গবন্ধু যে কত বড় হৃদয়ের মানুষ ছিলেন তা তার কিছু কিছু কর্মে স্পষ্ট। একবার বলেছিলেন, আমি তোমাদেরকে হয়তো কিছু দিতে পারিনি; কিন্তু একটি সবুজ পাসপোর্ট আর একটি পতাকা দিয়ে গেলাম। এই দুটো দিয়েই তোমরা মাথা উঁচু করে চলতে পারবে।
তিনি দুঃখ করে বলেন, এখন এও শুনতে হয়, বিভিন্ন দেশে বিশেষ করে কানাডার বেগমপাড়া নামক স্থানে কিছু বাঙালি দুর্নীতির মাধ্যমে দেশের সম্পদ পাচার করে বিলাসবহুল জীবন যাপন করছে। একদিকে দুর্নীতি করে অন্যদিকে বঙ্গবন্ধুর কথা বলে। বঙ্গবন্ধু আত্মশুদ্ধ সোনার মানুষ চেয়েছিলেন; কিন্তু সেই আত্মশুদ্ধ মানুষ নেই বলেই দুর্নীতি হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুকে জানতে হলে, বুঝতে হলে, উপলব্ধি করতে হলে ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’, ‘কারাগারের রোজনামচা’ ও ‘আমার দেখা নয়াচীন’ এই তিনটি বই পড়তেই হবে এবং ছেলেমেয়েদের হাতে তুলে দিতে হবে।
সম্মেলনে যুক্তরাজ্য, কানাডা ও যুক্তরাষ্ট্রে লুকিয়ে থাকা যুদ্ধাপরাধী ও বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বাংলাদেশের ফেরৎ পাঠানোর লক্ষ্যে যৌথ উদ্যোগ গ্রহণের প্রস্তাব করা হয়।
সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে স্বরচিত কবিতা ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু ছিলেন’ পাঠ করেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ বৃহত্তর ওয়াশিংটনের সভাপতি দস্তগীর জাহাঙ্গীর। অন্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড সিদ্দিকুর রহমান, ফোবানা চেয়ারম্যান ও ইউএসএ কমিটি ফর সেকুলার এন্ড ডেমোক্রেটিক বাংলাদেশের সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া চৌধুরী, যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের উপদেষ্টা এম এ সালাম, বঙ্গবন্ধু পরিষদ ক্যালিফোর্নিয়ার উপদেষ্টা মোমিনুল হক বাচ্চু ও সাধারণ সম্পাদক রানা মাহমুদ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ বৃহত্তর ওয়াশিংটনের উপদেষ্টা ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্য্যালের প্রাক্তন সিনিয়র প্রসিকিউটর অমর ইসলাম, নিউইয়র্ক স্টেট আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি শেখ আতিকুল ইসলাম, অধ্যাপক শাহদাত হাসান, যুক্তরাজ্য থেকে মোস্তফা কামাল বাবলূ প্রমুখ।
সম্মেলনে আরও সংযুক্ত ছিলেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ মিশিগানের আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার আহাদ আহমদ, শাখাওয়াত আলী, অধ্যাপক ড রাজীব ও জামাল আহমদ খান।
যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রাফায়েত চৌধুরী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

Share Button
November 2021
M T W T F S S
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
2930