JUST NEWS
THE 13TH NATIONAL MATHEMATICS OLYMPIAD-2022 SYLHET REGION COMPETITION HELD AT NORTH EAST UNIVERSITY BANGLADESH ON FRIDAY
সংবাদ সংক্ষেপ
সিলেট বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক শিক্ষার্থীদের মধ্যে সম্মাননাপত্র বিতরণ নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশে জাতীয় গণিত অলিম্পিয়াড অনুষ্ঠিত Sylhet divisional Bangabandhu Bangamata football started সিলেট জেলার ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা ২৮ ও ২৯ নভেম্বর ধর্ষণ-নির্যাতন মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির দাবি সুনামগঞ্জ মহিলা পরিষদের মাধবপুরে কৃষকের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন খেলাধুলার উন্নয়নে যুগান্তকারী উদ্যোগ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করছে সরকার : বিভাগীয় কমিশনার সিলেট ফটোগ্রাফিক সোসাইটি বার্ষিক সাধারণ সভা ৩০ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ১০ লাখ টাকার চেক গরীব রোগীদের মধ্যে বিতরণ দারুল আজহার মডেল মাদরাসা সিলেটের বিজ্ঞান মেলা সম্পন্ন কারিগরি শিক্ষায় উদ্বুদ্ধকরণে হলি আর্ট যুব সংস্থার আলোচনা ভবিষ্যতের দুর্যোগ মোকাবেলায় কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধির বিকল্প নেই : জেলা প্রশাসক সিলেটে বন্ধু সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার সোসাইটির মতবিনিময় সভা District level literary fair concluded in Sylhet সুবিধাভোগীদের মধ্যে এসওএস চিলড্রেনস ভিলেজের খাদ্য বিতরণ নবীগঞ্জে সাংবাদিক হিমেলের উদ্যোগে অষ্টপ্রহরব্যাপী কীর্তন শুরু

বাহুবলে ৪ শিশু হত্যা মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ : রায়ের দিন ধার্য্য মঙ্গলবার

  • বৃহস্পতিবার, ২০ জুলাই, ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক : হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলায় ৪ শিশু হত্যা মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়েছে। সিলেট বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত বাদি ও বিবাদি পক্ষ এই যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। এখন রায় ঘোষণা। এ জন্যে বিচারক মকবুল আহসান ২৫ জুলাই মঙ্গলবার দিন ধার্য্য করবেন।
২০১৬ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি বিকালে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয় উপজেলার সুন্দ্রাটিকি গ্রামের ওয়াহিদ মিয়ার ছেলে জাকারিয়া আহমেদ শুভ, আব্দুল আজিজের ছেলে তাজেল মিয়া, আবদাল মিয়ার ছেলে মনির মিয়া ও আব্দুল কাদিরের ছেলে ইসমাঈল হোসেন। তাদের বয়স ছিল ৮ বছর থেকে ১০ বছর। নিখোঁজের ৫ দিন পর পার্শ্ববর্তী ইচাবিল নামক স্থান থেকে পুলিশ মাটি চাপা অবস্থায় তাদের লাশ উদ্ধার করে।
এ ঘটনায় বাহুবল থানায় ৯ জনকে আসামি দিয়ে মামলা করেন মনির মিয়ার বাবা আবদাল মিয়া। গ্রেফতার হন গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান আব্দুল আলী বাগাল ও তার দুই ছেলে সহ ৬ জন। এর মধ্যে বাচ্চু র‌্যাবের ক্রসফায়ারে নিহত হন। অন্যদিকে আব্দুল আলীর দুই ছেলে সহ ৪ জন হত্যাকাণ্ডে নিজেদের জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন। অপর ৩ আসামি পলাতক রয়েছে।
২৯ এপ্রিল মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোয়েন্দা শাখার তৎকালীন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোক্তাদির হোসেন ৯ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। জেলা ও দায়রা জজ আদালতে মামলা চলাকালে ৫৭ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ৪৫ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।
এ বছরের ১৫ মার্চ মামলাটি সিলেট বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে স্থানান্তর হয়।
পিপি মিছবাহ উদ্দিন সিরাজ জানিয়েছেন, বাদি পক্ষ আসামিদের অপরাধ প্রমাণে সক্ষম হয়েছে।
তারা আশা করছেন, অভিযুক্তরা সর্বোচ্চ শাস্তি পাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest