JUST NEWS
SAMMYABADI DAL CENTRAL POLITBURO MEMBER COMRADE DHIREN SINGH PASSED AWAY
সংবাদ সংক্ষেপ
বানিয়াচংয়ে খেলাফত মজলিসের উলামা ও কর্মী সমাবেশ সুনামগঞ্জে বাউল কামাল পাশার ১২১ তম জন্মবার্ষিকী পালিত পুষ্টি ক্ষেত্রে সিলেটের পরিস্থিতি দেশের অন্যান্য জেলার চেয়ে খারাপ : জেলা প্রশাসক সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে কেউ মাদক ও ব়্যাগিংয়ে জড়ালে কঠোর ব্যবস্থা : উপাচার্য নর্থ ইস্ট ইউনিভার্সিটির ভর্তি মেলায় প্রথম দিনেই অভুতপূর্ব সাড়া ইব্রাহিম আলী স্মৃতি মেধাবৃত্তি পরীক্ষার পুরস্কার বিতরণ খুব শিগগির Sammyabadi Dal leader Dhiren Singh is no more সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় পলিটব্যুরো সদস্য কমরেড ধীরেন সিংহ মারা গেছেন : শোক প্রকাশ মাধবপুরে তেলবাহী ট্রেনের ইঞ্জিন বিকল || রেল লাইনের দুপাশে যানজট সাম্যবাদী দলের কেন্দ্রীয় পলিটব্যুরো সদস্য কমরেড ধীরেন সিংহ মারা গেছেন বিতর্কিত নতুন পাঠ্যপুস্তক মানুষ গ্রহণ করবে না : হুছামুদ্দীন চৌধুরী ফুলতলী শেখ মনির জন্মদিন উপলক্ষে হবিগঞ্জে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি কর্মগুণে জমির আহমদ মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন : হাবিব জকিগঞ্জে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু মিনি নাইট ফুটবল টুর্নামেন্ট মাহা-সিলেট জেলা প্রেসক্লাব ক্যারমে চ্যাম্পিয়ন আরিফ-আশরাফ Dialogue on Present Situation of Health Services

বাহুবলে স্বামীর পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

  • মঙ্গলবার, ৭ নভেম্বর, ২০১৭

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার পশ্চিম রূপশংকর গ্রামে স্বামীর পরকীয়ার প্রতিবাদ করায় রুনা আক্তার নামের এক সন্তানের জননীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
মঙ্গলবার সকালে এ ঘটনাটি ঘটে। রুনা আক্তারের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য পুলিশ হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে মর্গে প্রেরণ করেছে।
এ ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত স্বামী এমরান মিয়া ও পরিবারের লোকজন পলাতক রয়েছে।
এমরান মিয়ার সাথে তার চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রীর পরকীয়ার বিষয়টি কয়েকদিন আগে ধরা পড়ে। এ নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ চলছিল। রুনা আক্তারের বাবা মকসুদ আলী জানান, মেয়ের জামাই এমরান মিয়া মারপিট করে তার মেয়েকে হত্যা করেছে।
তবে ছুরতহাল তৈরিকারী সদর মডেল থানার এসআই মির্জা মাহমুদুল হাসান জানান, মরদেহে দৃশ্যমান কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্তের পর বলা, যাবে রুনা আক্তার কিভাবে মারা গেছে।
পুলিশ জানায়, চুনারুঘাট উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের বাসের সহকারী আফরাজ মিয়া তার মেয়ে রুনা আক্তারকে ৪ বছর পূর্বে বাহুবল উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রূপশংকর গ্রামের মকসুদ মিয়ার ছেলে এমরান মিয়ার সাথে বিয়ে দেন। দেড় বছর পর তাদের এক পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। সম্প্রতি এমরান মিয়ার সাথে তার চাচাতো ভাইয়ের স্ত্রীর পরকীয়া বিষয়টি রুনা আক্তার অবগত হন। এর প্রতিবাদ করায় তার উপর স্বামী নির্যাতন চালাতে থাকে।
সোমবার বিকেলে এমরান মিয়া স্ত্রীকে বেদম মারপিট করলে রুনা আক্তার বিষয়টি তার বাবাকে অবগত করেন। পরদিন সকালে আফরাজ মিয়া হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের বারান্দায় মরদেহ দেখতে পান। পরে তিনি হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার পুলিশকে অবগত করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest