NATIONAL
Prime Minister and Awami League President Sheikh Hasina has reiterated her firm conviction to bring Tarek Zia back from London and implement the court verdict || প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা তারেক জিয়াকে লন্ডন থেকে ফিরিয়ে এনে আদালতের রায় বাস্তবায়নে দৃঢ় প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করেছেন
সংবাদ সংক্ষেপ
শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে ওয়েলস আ লীগের সভা সিলেট অঞ্চলসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার বিপুল সংখ্যক মানুষ নিরাপদ পানি সংকটে প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা নূরুল আমীনের ইন্তেকালে শোক প্রকাশ শ্রীমঙ্গলের চা বাগানে র‌্যাবের অভিযানে অস্ত্র ও প্রচুর মাদকসহ একজন আটক Prime Minister’s gift to Hazrat Shahjalal’s Ors দক্ষিণ সুরমায় জায়গা কিনে হামলা ও হয়রানির শিকার প্রবাসী পরিবার এসএমপি ডিবির অভিযানে ৬৯ লাখ টাকার ভারতীয় পণ্যসহ গ্রেফতার ১ হজরত শাহজালালের ওরসে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌঁছে দিলো সিসিক শিশুশ্রম বন্ধে সরকার আইনের সর্বোচ্চ প্রয়োগ করবে : প্রতিমন্ত্রী সর্বজনীন পেনশন স্কিমে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি বাতিল দাবিতে মানববন্ধন সিকৃবির নতুন সিন্ডিকেট সদস্য ড মেহেতাজুল ইসলাম ও ড আবু সাঈদ সিলেটের কৈলাশটিলায় আরও একটি কূপে গ্যাসের সন্ধান পাওয়া গেছে দি ম্যান অ্যান্ড কোম্পানির বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ প্রবাসীর সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে সুমনকুমার দাশের সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত এডভান্সড কৃষি গবেষণা আন্তর্জাতিক সম্মেলনে জকিগঞ্জের রনির সাফল্য দলীয়করণে ক্রীড়াঙ্গনকে ধ্বংস করে দিয়েছে সরকার : আমিনুল হক

বানিয়াচংয়ে স্ত্রী হত্যা মামলার রায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

  • বুধবার, ২৬ জুলাই, ২০২৩

বিশেষ প্রতিবেদক, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যার মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়েছে।
বুধবার, ২৬ জুলাই বিকেলে হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের বিচারক আজিজুল হক মামলার রায় ঘোষণা করেন। এতে আসামিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের সশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।
দণ্ডপ্রাপ্ত আশরাফ আলীর বাড়ি উপজেলার রতরপুর গ্রামে। তিনি পলাতক রয়েছেন।
অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-১ আদালতের স্ট্যানোগ্রাফার মো মুখলেছুর রহমান জানান, ২০০৫ সালের ১৫ মে দুপুর ২টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে আশরাফ আলী তার স্ত্রী মাহমুদা আক্তার রেনুকে পিটিয়ে হত্যা করেন। পরে তার মুখে বিষ ঢেলে নৌকায় করে হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে তিনি পালিয়ে গেলে তার পরিবারের সন্দেহ হয়।
এ ঘটনায় মাহমুদা আক্তার রেনুর ভাই আইয়ূব আলী বাদি হয়ে ৬ জনকে আসামি দিয়ে ২৯ মে আদালতে একটি হত্যা মামলা আবেদন করেন।
বিচারক মামলার আবেদনটি গ্রহণ করে বানিয়াচং থানাকে এফআইআর করার নির্দেশ দেন।
বানিয়াচং থানার তৎকালীন এস আই সিরাজুল ইসলাম ও পরে এস আই হেলাল উদ্দিন মামলাটির তদন্ত করেন। তদন্ত শেষে আশরাফ আলীকে একমাত্র আসামি করে আদালতে প্রতিবেদন দেওয়া হয়। মামলায় ৯ সাক্ষী সাক্ষ্য দেন।
রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট সালেহ উদ্দিন আহমেদ।
রায়ে সন্তুষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলেন, এ রায়ের মাধ্যমে ন্যায় বিচার নিশ্চিত হয়েছে। আইন সবার জন্যই সমান।
এর মাধ্যমে অপরাধ প্রবণতা কমবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest