JUST NEWS
THE DISTRICT ADMINISTRATION CELEBRATED WORLD RIVER DAY IN SYLHET
সংবাদ সংক্ষেপ
মহিউদ্দিন শীরুর মৃত্যুবার্ষিকীতে জেলা প্রেসক্লাবের শ্রদ্ধা নিবেদন লাখাই বিএনপির মতবিনিময় সভায় খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার ঘোষণা জগন্নাথপুরে ‘পিউরিয়া’ ফুড প্রোডাক্টের আউটলেট উদ্বোধন জগন্নাথপুরে মায়ের মরদেহ ঘরে রেখে এসএসসি পরীক্ষা দিলো মেয়ে সুনামগঞ্জে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশের বাঁধা ও হাতাহাতি সিলেট জেলা পরিষদ নির্বাচন থেকে সরে গেলেন ৭ সদস্য পদপ্রার্থী নদীগুলো বেঁচে না থাকলে দেশ অচল হয়ে যাবে : বিশ্ব নদী দিবসে জেলা প্রশাসক শারদীয় দুর্গোৎসব : মাধবপুরে নানা আয়োজনে মহালয়া অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনার জন্মদিনে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের কর্মসূচি বিশেষ ট্রাইব্যুনাল করে জামাত-শিবির চক্রের সকল হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি জাসদের শাল্লায় বর্ণাঢ্য কর্মসূচিতে উদযাপিত হলো মিনা দিবস ২০২২ মাধবপুরে ইউপি নির্বাচনে বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক আহত লাক্কাতুরা চা বাগানে ‘লাকড়ি তোড়া’র স্থানে সীমানা দেয়াল নির্মাণ দাবি সামাজিক বন্ধনের ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখার আহবানে মৌলভীবাজারে সম্প্রীতি সমাবেশ সিলেটে টিলা কাটার অপরাধে ৪ জনের বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড শাল্লায় ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদেরকে উপজেলা প্রশাসনের সহায়তা প্রদান

প্রতিবন্ধিতা বাধা হয়নি কুলাউড়ার সুপ্রিয়া ও প্রিয়ন্তীর এগিয়ে চলায়

  • বুধবার, ৪ নভেম্বর, ২০২০

সাইফুল ইসলাম সুমন, জুড়ী : সুপ্রিয়া সিনহা ও প্রিয়ন্তী সিনহা দুই বোন। একসঙ্গে হেঁটে হেঁটে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যেতেন। তখন থেকেই আস্তে আস্তে তারা চলনশক্তি হারিয়ে ফেলতে থাকেন; কিন্তু তাদের মানসিক শক্তি অটুট থাকে। তাই এগিয়ে চলা থেমে থাকেনি।
মা-বাবার যত্ন আর প্রেরণায় প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের গণ্ডি পেরিয়ে এখন সুপ্রিয়া সিনহা (২২) স্থানীয় ইয়াকুব-তাজুল মহিলা কলেজে সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে স্নাতক-সম্মান চতুর্থ বর্ষের আর প্রিয়ন্তী সিনহা মৌলভীবাজার সরকারি কলেজে ইংরেজি বিষয়ে স্নাতক-সম্মান প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। পাশাপাশি সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডেও সুনাম কুড়িয়েছেন।
মৌলভীবাজারের কুলাউড়া শহরের মধ্য মাগুরা এলাকায় একটি ভাড়া বাসায় থাকে সুপ্রিয়া সিনহা ও প্রিয়ন্তী সিনহার পরিবার। তাদের মূল বাড়ি পার্শ্ববর্তী কমলগঞ্জ উপজেলার উত্তর ভানুবিল গ্রামে। মণিপুরি পরিবারের এ দুই বোনের এগিয়ে চলার প্রেরণা বাবা সুরেন্দ্র কুমার সিংহ ও মা সুশীলা রানী সিনহা।
অবসর প্রস্তুতিমূলক ছুটিতে থাকা সরকারি কর্মচারী সুরেন্দ্র কুমার সিংহ জানান, হঠাৎ করেই দুই মেয়ের চলাফেরার শক্তি কমতে থাকে। ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসককে দেখান; কিন্তু কোনো ফল হয়নি। দু’জনের হাতের জোরও কমে গেছে।
প্রিয়ন্তী সিনহা বছরখানেক ধরে উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর থেকে প্রতি মাসে প্রতিবন্ধী ভাতা পান; কিন্তু সুপ্রিয়া সিনহা পান না।
সুশীলা রানী সিনহা জানালেন, দুই সন্তানকে গোসল করানো, খাওয়ানো, জামাকাপড় পড়ানো—সব কাজ তারাই করেন।
সুপ্রিয়া সিনহা লেখাপড়া শেষ করে সরকারি চাকরি করতে চান। তার শখ বইপড়া, কবিতা আবৃত্তি ও গান গাওয়া। প্রিয়ন্তী সিনহা চান শিক্ষক হতে। ভালবাসেন বই পড়তে, ছবি আঁকতে ও গান গাইতে। তারা বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে বেশ কিছু পুরস্কারও পেয়েছেন।
দুই বোন জানালেন, জীবনের এতটুকু আসতে পারাটা মা-বাবার জন্যই। মা-বাবাই তাদের বন্ধু হয়ে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More
স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest