নারায়নগঞ্জ থেকে হবিগঞ্জের মাদরাসা ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার : কারণ নারীঘটিত

Published: 19. Apr. 2021 | Monday

এস এম সুরুজ আলী, হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জ থেকে নিখোঁজের ১০ দিন পর আইয়ুবুর রহমান খোকন (১৭) নামের এক মাদরাসা ছাত্রের মরদেহ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পাওয়া গেছে। অজ্ঞাত পরিচয়ে মরদেহটি দাফন করা হয়েছিল সেখানে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুই তরুণীসহ তিন জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে।
খোকন সদর উপজেলার দক্ষিণ তেঘরিয়া গ্রামের আব্দুল হেকিমের ছেলে। সে হবিগঞ্জ দারুস সুন্নাহ দাখিল মাদরাসায় পড়তো।
পারিবার জানায়, বাড়ি থেকে বের হয়ে সে বাড়ি ফিরে না আসায় বিভিন্নস্থানে খোঁজাখুঁজি করা হয়; কিন্তু কোথাও পাওয়া যায়নি। শনিবার বিকেলে সদর উপজেলার ছোট বহুলা গ্রামে ফারজানা আক্তার নামের এক তরুণী নিহত আইয়ুবুর রহমান খোকনের প্রতিবেশী এক যুবককে জানায়, খোকনকে নারায়ণগঞ্জে খুন করা হয়েছে। যুবক কথাটি জানায় খোকনের বাবাকে। তিনি দুজন সাংবাদিককে নিয়ে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যার কাছে গিয়ে তাকে অবগত করেন।
পুলিশ সুপার ডিবির ওসি আল-আমিন ও সদর মডেল থানার ওসি-তদন্ত দৌস মোহাম্মদকে ডেকে নির্দেশ দেন, বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করতে। এছাড়া তিনি নিজেও নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।
নায়ারাগঞ্জ থেকে পুলিশ সুপারকে জানানো হয়, ৫ দিন পূর্বে রূপগঞ্জের এক ভাড়াটে বাসা থেকে অজ্ঞাত তরুণের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে আঞ্জুমানে মফিদুল ইসলামের মাধ্যমে দাফন করা হয়েছে। এ তথ্য পেয়ে পুলিশ সুপার ডিবির ওসি আল-আমিনকে পাঠান ছোট বহুলা গ্রামে। তিনি প্রথমে ফারজানা আক্তারের সঙ্গে কথা বলেন। সে তথ্যের সূত্র হিসেবে উল্লেখ করে একই গ্রামের তরুণী শাবনূরের নাম। পরে পুলিশ শাবনূরকে গ্রেফতার করে। তার স্বীকারোক্তিতে গ্রেফতার করা হয় তার বান্ধবী সাবিনা ও তার প্রেমিক সোহেল মিয়া সুমনকে।
তারা জানায়, আইয়ুবুর রহমান খোকনের সঙ্গে শাবনূরের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কয়েক দিন পূর্বে এক সাথে ৪ জন রূপগঞ্জে গিয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে একটি বাসা ভাড়া নেয়। এর মধ্যে সাবিনার উপর কুনজর পড়ে খোকনের। সে সুযোগ পেয়ে ধর্ষণ করে সাবিনাকে। সাবিনা কথাটি জানিয়ে দেয় শাবনূর ও সোহেলকে। এরপর তারা ৩ জন বিশ্বাসঘাতকতার অপরাধে খোকনকে শেষ করে দেওয়ার পরিকল্পনা করে।
পরিকল্পনা অনুযায়ী তারা প্রথমে নুডলসের সঙ্গে ঔষধ মিশিয়ে আইয়ুবুর রহমান খোকনকে খাইয়ে অজ্ঞান করে দিয়ে পরে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে।
ডিবির ওসি আল-আমিন জানান, গ্রেফতারকৃত তিনজনই অপরাধ স্বীকার করেছে। তবে তাদের বয়স ১৮ বছরের কম।
হবিগঞ্জের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা জানান, নির্দেশনা মোতাবেক অল্প সময়ের মধ্যেই পুলিশ রহস্য উদঘাটন করে।

Share Button
May 2021
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31  

দেশবাংলা