JUST NEWS
CORONA UPDATE IN SYLHET DIVISION ON AUGUST 11 : TILL 8 AM SAMPLE TEST SYLHET 76 SUNAMGANJ 0 MOULVIBAZAR 0 HABIGANJ 0; IDENTIFIED SYLHET 6 SUNAMGANJ 0 MOULVIBAZAR 0 HABIGANJ 0; RATE 07.89; RECOVERY SYLHET 10 SUNAMGANJ 0 MOULVIBAZAR 0 HABIGANJ 0; DEATH SYLHET 1
সংবাদ সংক্ষেপ
১৫ দিনের জমজমাট সিলেট বিভাগীয় বৃক্ষমেলা শেষ হচ্ছে শনিবার আ লীগ ১৩ বছরে দেশকে লুটেপুটে শেষ করে দিয়েছে : কাইয়ুম চৌধুরী সিলেটে ৪৩টি ক্বওমি মাদরাসায় জামায়াতের আর্থিক সহায়তা প্রদান পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড এ কে আব্দুল মোমেন ৩৬ ঘণ্টার সফরে সিলেট আসছেন শুক্রবার জামালগঞ্জের নয়াগাঁও মাদরাসায় জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা ও দোয়া শুক্রবার মঞ্চে ‘এবং প্রমিলা’য় একক অভিনয় নিয়ে হাজির হচ্ছেন উর্মি সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপারকে ইজিবাইক মালিক শ্রমিকদের সংবর্ধনা নির্মিত হচ্ছে শিশুতোষ চলচ্চিত্র ‘চেতনা’ || সম্পন্ন হয়ে গেছে চিত্রায়ণ জুড়ীতে টি এন খানম কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ অধ্যাপকের সংবর্ধনা বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ৭০০ কৃষক পরিবারের মাঝে কৃষি সামগ্রী বিতরণ জাতীয় বাউল সমিতি ফাউন্ডেশনের জেলা কমিটি অনুমোদিত সিলেট আসছেন বেসরকারি বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশ শ্রীলংকা হবে না : স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী পদোন্নতিপ্রাপ্ত তিন কর্মকর্তাকে বিদায় সংবর্ধনা এসএমপির সিলেট ইন্ডাস্ট্রিয়াল হাব হতে পারে || বিনিয়োগের রয়েছে প্রচুর সম্ভাবনা : বিডা চেয়ারম্যান সিলেটে সাজাপ্রাপ্ত পলাতক আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব ৯

নবীগঞ্জে বিয়ের ৭ মাসের মাথায় ওমান প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

  • বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় বিয়ের ৭ মাসের মাথায় এক ওমান প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।
মঙ্গলবার সন্ধায় উপজেলার কুর্শি ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রাম থেকে পুলিশ হাবিবা আক্তার নামের এই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
পুলিশ জানায়, সুলতানপুরের মোস্তফা মিয়ার ছেলে নূরুল আমীনের সাথে একই গ্রামের রিপন মিয়ার মেয়ে হাবিবা আক্তারের বিয়ে হয় প্রায় ৭ মাস আগে। বিয়ের ২ মাস পর ওমানে পাড়ি জমান নূরুল আমীন। তবে শ্বশুরবাড়িতেই অবস্থান করতে থাকেন হাবিবা আক্তার। মঙ্গলবার দুপুরে তার বাবা-মা বেড়াতে যান আত্মীয়বাড়ি। ঐদিন বিকেলেই হঠাৎ বাপের বাড়ি চলে আসেন হাবিবা আক্তার। খালি একটি ঘরে উঠেন তিনি। এর কিছুক্ষণ পরেই খবর রটে যায়, ঘরের তীরের সাথে মায়ের শাড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে আছেন মেয়ে। খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। তবে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরিকালে মরদেহে ফাঁসের কোন চিহ্ন দেখা যায়নি বলে পুলিশ জানায়।
প্রতিবেশীরা জানান, যে ঘরে হাবিবা আক্তারের মরদেহ ঝুলন্ত অবস্থায় ছিলে সে ঘরে কেউ থাকেনা। অর্থাৎ ঘরটি সবসময় খালি পড়ে থাকে। তাই তার সে ঘরে যাওয়া আর ঝুলন্ত অবস্থায় মরদেহ পাওয়া নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।
এলাকাবাসী ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। অন্যদিকে পুলিশ বলছে, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন এলেই আসল ঘটনা জানা যাবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More
স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest