JUST NEWS
A TWO-DAY LONG BANGLADESH CULTURAL FESTIVAL HAS STARTED IN SYLHET UNDER THE INITIATIVE OF SHILPAKALA ACADEMY
সংবাদ সংক্ষেপ
হৃদরোগ সম্পর্কে সচেতনতা প্রয়োজন : সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার দুর্গাপূজায় সার্বক্ষণিক জরুরি সেবা দিতে সিসিকের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ চালু পূর্ব লন্ডনে ডেমোক্রেটিক মুভমেন্ট ইউকের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত সিলেটে জশনে জুলুছে ঈদ-এ মিলাদুন্নবী (দ) শোভাযাত্রা শুক্রবার গোয়াইনঘাট উপজেলা কৃষক দলের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত সিলেটে কর্মসম্পাদন ব্যবস্থাপনা ও শুদ্ধাচার কৌশল নিয়ে মন্ত্রীপরিষদ সচিবের আলোচনা সুনামগঞ্জ জেলা যুবলীগ আহবায়ক চপলকে কারণ দর্শানোর নোটিশ জকিগঞ্জ ও কানাইঘাটে চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের সঙ্গে নাসিরের মতবিনিময় মাধবপুরে সার ও কীটনাশক দোকানে অভিযানে জরিমানা আদায় বিশ্বম্ভরপুরে বিনাধানের প্রচার ও সম্প্রসারণে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত পোয়েটসপিডিয়া বাংলার কমিটি গঠন : নেতৃত্বে ৪ দেশের বাঙালি সিলেটে বাংলাদেশ ইয়ুথ ক্যাডেট ফোরামের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন সিলেট মহানগর বিএনপির ওয়ার্ড সম্মেলন শুরু হচ্ছে শুক্রবার থেকে হযরত শাহ পরাণের ৩ দিনব্যাপী বার্ষিক ওরস শনিবার থেকে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে মহানগর মৎস্যজীবী লীগের আলোচনা সভা শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন করলো ২৩ নম্বর ওয়ার্ড আ লীগ

নবীগঞ্জে গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পে ঘর দিতে টাকা নেওয়ার অভিযোগ : তদন্ত শুরু

  • সোমবার, ২৭ জুলাই, ২০২০

উত্তম কুমার পাল হিমেল, নবীগঞ্জ : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জে গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পে ঘর দেওয়ার নামে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও এক মেম্বারের বিরুদ্ধে। তাই শুধু নয়, কথামতো সম্পূর্ণ টাকা দিতে না পারায় সুবিধাভোগীকে অফিসে ডেকে নিয়ে অমানবিক নির্যাতনের অভিযোগও পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ওসি বরাবর একব্যক্তি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
এলাকার অন্যান্য ভূমিহীনের অভিযোগ, চেয়ারম্যান ও মেম্বারের চাহিদা মতো টাকা দিতে না পারায় তাদেরকে সরকারের এই প্রকল্পের আওতায় নেওয়া হয়নি। তবে প্রশাসন বলছে অভিযোগের তদন্ত শুরু হয়েছে।
অভিযোগ উঠেছে, উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের পারকুল গ্রামের অসহায় মহিবুর রহমান ২ মাস পূর্বে পারকুল গ্রচ্ছগ্রাম প্রকল্পে ১টি ঘরের জন্য ইউপি চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুন ও মেম্বার দুলাল মিয়ার সাথে যোগাযোগ করেন। তখন চেয়ারম্যান ও মেম্বার তার কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। আলোচনার ভিত্তিতে প্রথমে তিনি পরিশোধ করেন ৩০ হাজার টাকা। অবশিষ্ট টাকা পরে দেওয়ার কথা; কিন্তু ঘর বুঝে পাওয়ার পর বাকি ২০ হাজার টাকা দেওয়ার দেওয়ার জন্য চাপ দিতে শুরু করেন মেম্বার। হতদরিদ্র মুহিবুর রহমান তখন টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করেন। পরে তাকে মোবাইল ফোনে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে চেয়ারম্যান ও মেম্বার অমানবিক নির্যাতন করেন। মুহিবুর রহমান ১৯ জুলাই নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নবীগঞ্জ থানার ওসি বরাবর এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।
সরেজমিনে পারকুল গ্রামে গেলে আরো ভূমিহীন লোকজন গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পে ঘর দেওয়ার নামে চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন ও মেম্বার দুলাল মিয়ার বিরুদ্ধে অর্থ গ্রহণের অভিযোগ তুলেন।
খুর্শেদা বেগম নামের ভূমিহীন একজন অভিযোগ করেন, তার স্বামী মারা যাওয়ার পর সন্তানদের নিয়ে অন্যের বাড়িতে থাকেন তিনি। গুচ্ছগ্রাম প্রকল্পে ঘর পাওয়ার জন্য ইউপি সদস্যের মাধ্যমে ইউনিয়ন অফিসে যোগাযোগ করেন। চেয়ারম্যানের কাছে ১১ হাজার টাকাও দেন। আরো ৫ হাজার টাকা দাবি করেন চেয়ারম্যান; কিন্তু টাকা দিতে না পারায় তাকে ঘর দেওয়া হয়নি।
ভূমিহীন মুক্তাদির মিয়া জানান, চেয়ারম্যান ও মেম্বারের দাবি মতো ৫০ হাজার টাকা দিতে না পারায় তাকে ঘর দেওয়া হয়নি।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করলে আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার দুলাল মিয়া জানান, তিনি কারো কাছ থেকে কোন টাকা নেইনি বা টাকা নিয়ে কাউকে ঘরও দেইনি। এটা ইউএনও সাহেবের প্রকল্প। ইউএনও সাহেব, পিআইও সাহেব তারা ঘর দিয়েছেন, তিনি কিছুই জানেন না।
আউশকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মহিবুর রহমান হারুনের সঙ্গে কথা বলতে অফিসে গিয়ে পাওয়া যায়নি। পাওয়া যায়নি মোবাইল ফোনে বারবার কল দিয়েও। পরে তিনি কল দিয়ে তার অফিসে গিয়ে চা খাওয়ার দাওয়াত দেন।
এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার-ভূমি সুমাইয়া মমিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, অভিযোগের তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ হলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More
স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest