নবীগঞ্জের তন্নী হত্যাকাণ্ড : আদালতে দায় স্বীকার করেছে গ্রেফতারকৃত প্রেমিক রানু

Published: 09. Oct. 2016 | Sunday

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : নবীগঞ্জ উপজেলার মেধাবী কলেজ ছাত্রী তন্নী রায় হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে প্রেমিক রানু রায় আদালতে জবানবন্দি দিয়েছে।
হত্যাকাণ্ডের ২১ দিন পর ব্রাক্ষণবাড়ীয়া থেকে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) রানু রায়কে গ্রেফতার করেছে।
১৭ই সেপ্টেম্বর দুপুরে প্রেমিকের ডাকে ঘর থেকে বের হয়ে নিখোঁজ হয় তন্নী রায়। ঐদিন রাতেই পরিবারের সদস্যরা নবীগঞ্জ থানায় জিডি করেন। এর ৩ দিন পর ২০শে সেপ্টেম্বর বিকেলে পাশেই বরাক নদীর গরমুলীয়া সেতুর নিকট থেকে বস্তাবন্দি অবস্থায় তার লাশ পাওয়া যায়।
এর পর থেকে তন্নী রায় হত্যার প্রতিবাদে নবীগঞ্জ ঐক্য মঞ্চের নেতৃত্বে সকল শ্রেণিপেশার মানুষের অংশগ্রহণে মানববন্ধন সহ নানা কর্মসূচি পালিত হতে থাকে।
তন্নী রায় নবীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের মেধাবী ছাত্রী। এ বছর কৃতিত্বের সাথে এইচএসসি পাশ করে। তারা এক ভাই ও এক বোন ছিল। বাবা ও ভাই কোমরে থাকা চাবি দেখে লাশ শনাক্ত করেন।
এদিকে, এ হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই হত্যাকারী হিসেবে তন্নী রায়ের প্রেমিক রানু রায়ের নামটি উচ্চারিত হতে থাকে।
অন্যদিকে রানু রায় সপরিবারে লাপাত্তা হয়ে যায়। একপর্যায়ে তার ঘরের তালা ভেঙ্গে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত নানা আলামত উদ্ধার করে পুলিশ। রানু রায় ও তার পরিবারের সদস্যদের মোবাইল ট্র্যাকিং করে তাদের সর্বশেষ অবস্থানও জেনে নেয়। এর জের ধরেই রানু রায়কে শুক্রবার বিকেলে ব্রাক্ষণবাড়ীয়া থেকে গ্রেফতার করা হয়।
শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে পুলিশ সুপার জয়দেব কুমার ভদ্র সাংবাদিকদের জানান, রানু রায় হবিগঞ্জের মুখ্য বিচারিক হাকিম নিশাত সুলতানার আদালতে ১৬৪ জবানবন্দি দিয়েছে। এর আগে পুলিশের কাছে সে তন্নী রায়কে হত্যার কথা স্বীকার করে।
তন্নী রায়ের পিতা বিমল রায়ের বাড়ি উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের পাঞ্জারাই গ্রামে। ব্যবসার সুবাদে দীর্ঘদিন ধরে নবীগঞ্জ শহরে বসবাস তার। এক খণ্ড জমি কিনে ঘর নির্মাণ করে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন পৌরসভার শ্যামলী (ধানসিঁড়ি) আবাসিক এলাকায়। বর্তমানে ইভা ফার্নিচারের ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছেন।
বিমল রায়ের বাসার একটি কক্ষ ভাড়া নিয়ে থাকতেন কানু রায়। তার মূল বাড়ি বানিয়াচং উপজেলার পুকড়া গ্রামে। তিনি সবজি ব্যবসা করেন। এই বাসা ভাড়া নেয়ার আগে উপজেলার আদিত্যপুর, দত্তগ্রাম ও শহরের ডাকবাংলো সড়কে বসবাস করতেন।
মাস দেড়েক আগে জয়নগর এলাকায় নতুন বাড়িতে গিয়ে উঠেন কানু রায়। এই কানু রায়েরই ছেলে রানু রায়। বিমল রায়ের বাসায় ভাড়া থাকার সময় তন্নী রায়ের সাথে রানু রায়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

Share Button
October 2020
M T W T F S S
« Sep    
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

দেশবাংলা