NEWSHEAD

তাহিরপুরের সীমান্ত এলাকায় ১০ গ্রামে গৃহহীন দুই শতাধিক পরিবার

Published: 17. Jul. 2019 | Wednesday

আবির হাসান : সাম্প্রতিক বন্যায় সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলাধীন বাংলাদেশ-ভারত সীমান্ত এলাকায় ১০াট গ্রামে দুই শতাধিক পরিবার ঘরবাড়ি হারিয়েছে।
এর মধ্যে অধিক ক্ষত্রিগস্ত গ্রামগুলো হলো, বড়ছড়া, চাঁনপুর, লাকমা, লালঘাট, বাঁশতলা, চারাগাঁও, জঙ্গলবাড়ী ও কলাগাঁও। গৃহহীন পরিবারগুলো বর্তমানে অন্যত্র বসবাস করছে।
এছাড়া উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের সাথের বালি পড়ে আনুমানিক ৫শ হেক্টর আমন জমি চাপা পড়েছে। ভেসে গেছে দুই শতাধিক পুকুরের মাছ। রাস্তাঘাটেরও ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, চারাগাঁও শুল্ক স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় ২০টির অধিক পরিবারের বাড়িঘর ভেঙে গেছে। গৃহহীন হয়েছেন, আব্দুস সালাম, জামাল উদ্দিন, নাজিম উদ্দিন, কুতুব উদ্দিন, রাবিয়া খাতুন, হারিছ মিয়া, বজলু মিয়া, লালু মিয়া, সরাজ মিয়া, আব্দুর রশিদ, সাইদুল ইসলাম, আছিয়া বেগম, আমিন খার মা, তারা মিয়া, সাইকুল ইসলাম, জলিল মিয়া প্রমুখ।
জঙ্গলবাড়ী গ্রামের মারফত আলী, চাঁন মিয়া, জালাল মিয়া, সাদ্দাম, খোকন মিয়া, আকবত আলী, কামাল মিয়া, শফিক মিয়া, মাসুক মিয়া, সুজন মিয়া, কমলা বেগম, সমলা খাতুন, জহুর আলী, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ছিকুনী বেগম, লোকমান মিয়া, কাঞ্চন মিয়া, পলাশ ও আয়ুব আলী জানিয়েছেন, বন্যায় তাদের বসতবাড়ি ভেঙে গেছে। এখন তারা আত্মীয়স্বজনদের বাড়িতে পরিবার পরিজন নিয়ে দিনযাপন করছেন।
পানির তোড়ে জঙ্গলবাড়ী জামে মসজিদ ও চারাগাঁও হাওরবাংলা স্কুল এন্ড টেকনিক্যাল কলেজের বারান্দা ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে। যে কোন সময় বিলীন হয়ে যেতে পারে হাওরে।
শ্রীপুর উত্তর ইউনয়নের ২নং ওয়ার্ডের সদস্য হাছান মিয়া সীমান্ত এলাকার অনেক পরিবার গৃহহীন হয়ে অন্যত্র জীবন যাপনের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সরেজমিনে এসে সবকিছু দেখে গেছেন।
তাহিরপুর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস ছালাম জানিয়েছেন, প্রতি বছরই পাহাড়ি ঢলের সাথে বালি এসে ফসলি জমি নষ্ট করে। তাই এসব জমিতে ধানের বদলে অন্যান্য ফসল উৎপাদন করতে কৃষকদেরকে পরামর্শ ও সহযোগিতা দেয়া হচ্ছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ ইমতিয়াজ জানিয়েছেন, চেয়ারম্যানদের সঙ্গে সমন্বয় করে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রেরণ করা হবে।

Share Button
December 2019
M T W T F S S
« Nov    
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
3031  

দেশবাংলা