NATIONAL
Prime Minister Sheikh Hasina said that she was afraid that the BNP-Jamaat alliance could do such an attack to stop the country's progress on the road to prosperity || প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তার আশঙ্কা ছিল, সমৃদ্ধির পথে দেশের অগ্রযাত্রা রুখে দিতে বিএনপি-জামায়াত জোট এই ধরনের হামলা করতে পারে
সংবাদ সংক্ষেপ
অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় আরেকটি কৃষ্ণকাল অতিক্রম করলো বাংলাদেশ Sylhet Chamber thanked the Prime Minister অস্থিতিশীল পরিস্থিতি দক্ষ হাতে নিয়ন্ত্রণের জন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালো সিলেট চেম্বার সন্ত্রাস ও নৈরাজ্য সৃষ্টির অপতৎপরতার বিরুদ্ধে এবার রাজপথে নামছে আওয়ামী লীগ জৈন্তাপুরে পুলিশের অভিযানে ২৫০ পিস ইয়াবা ও ৪৯৬ গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেফতার ২ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সিলেটে গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত কোটা সংস্কার আন্দোলকে কেন্দ্র করে বুধবারও সিলেট উত্তপ্ত ছিল জকিগঞ্জে দুই মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুই কিশোর নিহত || আহত ২ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী সকল ষড়যন্ত্র সাংস্কৃতিক আন্দোলনের মাধ্যমে মোকাবিলার অঙ্গীকার ঘোষণা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকে আন্দোলন করছে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার : ড আখতারুল ইসলাম মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী স্লোগানের নিন্দা জাস্টিস ফর বাংলাদেশ জেনোসাইডের সিলেট চেম্বারের সেমিনার ওয়ার্কশপ ও সম্মাননা প্রদান সাব-কমিটির সভা জঙ্গি সন্ত্রাস মাদক ও কিশোর গ্যাং নির্মূলে কাজ করতে হবে একসঙ্গে : এসএমপি কমিশনার দক্ষিণ সুরমার পারাইরচকে এসএমপি পুলিশ লাইন্স ও পিবিআইর সদর দফতরের স্থান নির্ধারণ সম্মিলিত প্রচেষ্টায় শিক্ষাক্ষেত্রে সিলেটকে এগিয়ে নিতে হবে : মেয়র আনোয়ারুজ্জামান রথযাত্রা বাঙালি সংস্কৃতির অংশ হয়ে গেছে : নাসির উদ্দিন খান

ট্রাম্পের ভ্রান্ত নীতির বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে

  • মঙ্গলবার, ৯ মে, ২০১৭

এনা, নিউইয়র্ক : মার্কিন কংগ্রেসওম্যান ও মার্কিন কংগ্রেসে বাংলাদেশ বিষয়ক কংগ্রেসনাল কমিটির কো-চেয়ারপারসন গ্রেস মেং বলেছেন, রাষ্ট্র পরিচালনায় প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প অসাধু পথ বেছে নিয়েছেন। তিনি আমেরিকার মূল্যবোধকে পাশ কাটিয়ে ইমিগ্রেশন নীতির পরিবর্তন আনতে চাইছেন। অথচ ইমিগ্র্যান্টরাই আমেরিকার মূল চালিকা শক্তি; কিন্তু তিনি একের পর এক ইমিগ্র্যান্টবিরোধী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করছেন, যা আমেরিকাকে পেছনে ফেলে দেবে। তার এই ভ্রান্ত নীতির বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে বাংলাদেশী কমিউনিটি সহ সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।
রবিবার সন্ধ্যায় নিউইয়র্কের এলমহার্স্টের অভিজাত লাগোর্ডিয়া প্লাজা হোটেলে বাংলাদেশী আমেরিকান সাংবাদিকদের সংগঠন আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাব-এবিপিসির নবনির্বাচিত কমিটির (২০১৭-২০১৮) অভিষেক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।
গ্রেস মেং বাংলাদেশের উন্নতি কামনা করে বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। বাংলাদেশের পোশাক বিশ্ববাজারে বিশাল স্থান দখল করে নিয়েছে।
তিনি জানান, বাংলাদেশের গার্মেন্টস শ্রমিকদের উন্নয়নে মার্কিন কংগ্রেস সাড়ে ৩ মিলিয়ন ডলার বরাদ্দের ঘোষণা দিয়েছে।
অনুষ্ঠানে অতিথি ছিলেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান রোকেয়া হায়দার, কমিটি টু প্রটেক্ট জার্নালিস্টসের দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক কর্মকর্তা আলিয়া ইফতিখার, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, রাজনীতিবিদ ড সিদ্দিকুর রহমান, মূলধারার রাজনীতিবিদ ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আক্তার হোসেন বাদল, এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের চেয়ারম্যান নিজাম চৌধুরী, জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি (প্রেস) নূরে এলাহী মিনা, তথ্যপ্রযুক্তিবিদ আবু বকর হানিফ, বিশিষ্ট সমাজসেবক আব্দুল কাদের মিয়া, বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান এম আজিজ, অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন, আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি লাবলু আনসার ও সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম। তাদের হাতে আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে ক্রেস্ট তুলে দেন গ্রেস মেং। আরো বক্তব্য রাখেন, অভিষেক উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক ও আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মীর ই ওয়াজিদ শিবলী, মিজানুর রহমান প্রমুখ।
এর আগে আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের নবনির্বাচিত কর্মকর্তাদের অনুষ্ঠানে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়। কর্মকর্তারা হলেন, সভাপতি লাবলু আনসার, সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, সহ সভাপতি মীর ই ওয়াজিদ শিবলী, যুগ্ম সম্পাদক রিজু মোহাম্মদ, কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ আবুল কাশেম, কার্যকরী সদস্য আশরাফুল হাসান বুলবুল, নিহার সিদ্দিকী, কানু দত্ত ও আজিম উদ্দিন অভি।
আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের সভাপতি লাবলু আনসার ও সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলামের হাতে প্রোক্লেমেশন তুলে দেন গ্রেস মেং। এছাড়া নিউইয়র্ক সিটির পাবলিক অ্যাডভোকেটের পক্ষ থেকেও প্রোক্লেমেশন প্রদান করা হয়। কংগ্রেসম্যান জোসেফ ক্রাউলির পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন এবং আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবকে কংগ্রেশনাল অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।
আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের অভিষেক কমিটির সদস্য সচিব মিজানুর রহমানের পরিচালনায় ও শারমিন রেজার উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে বেহালার সুরে বাংলাদেশ ও আমেরিকার জাতীয় সংগীত পরিবেশন করেন নিউইয়র্কের সংগীত পরিষদের শিল্পী শ্রুতিকণা দাস।
অনুষ্ঠানে বিভিন্ন সমাজসেবামূলক কর্মকাণ্ডের জন্য বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে সম্মাননা জানানো হয়। আজীবন সম্মাননা জানানো হয় আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ঠিকানার প্রেসিডেন্ট ও সিওও সাঈদ-উর-রবকে। তার হাতে স্মারক তুলে দেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন।
অভিষেক উপলক্ষে ‘অবিচল’ নামে একটি স্মরণিকা প্রকাশ করা হয়। এটি সম্পাদনা করেছেন আমেরিকা বাংলাদেশ প্রেসক্লাবের যুগ্ম সম্পাদক রিজু মোহাম্মদ। স্মরণিকার মোড়ক উম্মোচন করেন বাংলাদেশ সোসাইটির ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক দেলোয়ার হোসেন। রাষ্ট্রপতির শুভেচ্ছা বার্তা পড়ে শোনান নবনির্বাচিত কার্যকরী সদস্য আশরাফুল হাসান বুলবুল। উদ্বোধনী নৃত্য পরিবেশন করেন নৃত্যাঞ্জলি শিল্পীগোষ্ঠী। সাংস্কৃতিক পর্বে সংগীত পরিবেশন করেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় শিল্পী সেলিম চৌধুরী, নিউইয়র্কের জনপ্রিয় শিল্পী কৃষ্ণা তিথি, শাহ মাহবুব ও রোখসানা মির্জা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest