JUST NEWS
A NAVAL POLICEMAN WAS BEATEN TO DEATH IN BANYACHANG : KILLER ARRESTED
সংবাদ সংক্ষেপ
বানিয়াচংয়ে এক নৌ পুলিশ সদস্যকে পিটিয়ে হত্যা || ঘাতক গ্রেফতার পুরুষদের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নারীরাও গুরুত্বপূর্ণ নেতৃত্ব দিচ্ছেন : বিভাগীয় কমিশনার সিলেট ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা সম্পন্ন সিলেটের বিক্ষোভ সমাবেশ সফলে কোম্পানীগঞ্জ বিএনপির প্রস্তুতি সভা বিশ্বনাথে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে ইলিয়াস আলীকে ফিরিয়ে দেওয়ার দাবি প্রবাসীদের শ্রমিকদের মাঝে আনজুমানে খেদমতে কুরআনের শীতবস্ত্র বিতরণ ছাতকের পল্লীতে আব্দুল জলিল ও জহুরা বিবি ফ্রি মেডিক্যাল সেন্টার সিলেট অঞ্চলে এক ইঞ্চি জমিও পতিত না রাখার নির্দেশনা বাস্তবায়নে করণীয় নির্ধারণ জীবনে সফল হতে নিয়মানুবর্তিতা ও শৃঙ্খলা প্রয়োজন : ড জহিরুল হক এনইইউবির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যানের মৃত্যুবার্ষিকী পালন আবাসন ব্যবসায় গতি ও ক্রেতার আস্থা ফিরিয়ে আনতে মেলার আয়োজন করছে সারেগ মাধবপুরে গাঁজা ও পিকআপসহ মাদক কারবারি আটক শাহজালাল জামেয়ার বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন বাংলাদেশ এখন ডিজিটাল থেকে আরেক ধাপ এগিয়ে স্মার্ট বাংলাদেশের পথে : হাবিব Staying the Course : Journey of ‘Bengal’ Civilian মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটির স্প্রিং সেমিস্টারের শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন

গণমানুষের কবি দিলওয়ারের ৮১তম জন্মদিন রবিবার

  • শুক্রবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০১৬

গণমানুষের কবি দিলওয়ারের ৮১তম জন্মদিন ১লা জানুয়ারি রবিবার।
এ উপলক্ষে কবি দিলওয়ার পরিষদের উদ্যোগে সকাল ৯টায় কবির সমাধিস্থলে (মহানগরীর ভার্থখলায় কবি ভবনের সামনে) শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করা হবে।
সুরমা নদীর দক্ষিণপাড়ের ভার্থখলা গ্রামে ১৯৩৭ সালের এ দিনে তার জন্ম। পুরো নাম দিলওয়ার খান। ডাক নাম ছিল দিলু। পিতা মৌলভী মোহাম্মদ হাসান খান এবং মাতা রহিমুন্নেসা। পার্শ্ববর্তী ঝালোপাড়া পাঠশালা থেকে প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করে রাজা জি সি হাই স্কুল থেকে মেট্রিকুলেশন পাশ করেন তিনি ১৯৫২ সালে। উচ্চ মাধ্যমিক উত্তীর্ণ হন ১৯৫৪ সালে এম সি কলেজ থেকে। এরপর শারীরিক অসুস্থতার কারণে লেখাপড়ায় ইতি টানেন।
দক্ষিণ সুরমা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক হিসেবে দিলওয়ারের কর্মজীবন শুরু; কিন্তু শিক্ষকতার স্থায়িত্বকাল মাত্র দুই মাস। এরপর শুরু হয় তার সাংবাদিকতা জীবন। ১৯৬৭ সাল থেকে ১৯৬৯ সাল পর্যন্ত ছিলেন দৈনিক সংবাদের সহকারী সম্পাদক। ১৯৬৯ সাল থেকে ১৯৭১ সাল পর্যন্ত সম্পাদনা করেন সমস্বর। ১৯৭৩ সাল থেকে ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন দৈনিক গণকন্ঠের সহকারী সম্পাদক হিসেবে। ১৯৭৪ সালে সিনিয়র ট্রান্সলেটর হিসেবে যোগ দেন মাসিক উদয়নে। এছাড়া বিভিন্ন সময়ে উল্লাস, মৌমাছি, গ্রাম সুরমার ছড়া, মরুদ্যান ও সময়ের ডাক সম্পাদনা করেন।
কবি দিলওয়ারের লেখা ‘তুমি রহমতের নদীয়া’ গান দিয়ে সিলেট বেতার কেন্দ্র উদ্বোধন করা হয়। তিনি সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার বাস্তবায়ন পরিষদের আহবায়ক, খেলাঘর জেলা কমিটর সভাপতি, উদীচী শিল্পী গোষ্ঠীর সভাপতি, ভার্থখলা স্বর্ণালী সংঘের প্রতিষ্ঠাতা এবং স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের গীতিকার ও অবিধায় চিরস্মরণীয় হয়ে আছেন। তার ১২টি কাব্যগ্রন্থ, ২টি গানের বই; ২টি প্রবন্ধ গ্রন্থ, ২টি ছড়ার বই, দিলওয়ার রচনা সমগ্র ১ম খণ্ড, দিলওয়ার রচনা সমগ্র ২য় খণ্ড এবং ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রীর ডাকে (সংবর্ধনা স্মৃতিচারণ-২০০১) প্রকাশিত হয়েছে।
মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সরকার তাকে রাজনৈতিক পেনশন দিয়েছিলেন; কিন্তু পরবর্তী বিভিন্ন সরকার পেনশনের ধরন পরিবর্তনের জন্যে তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেন।
গণমানুষের কবি দিলওয়ার একুশে পদক সহ অনেক সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest