২৭ জানুয়ারি ২০২২

এসএমপির মাসিক কল্যাণ ও অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত

Published: ১০. জানু. ২০২২ | সোমবার

সিলেট মহানগর পুলিশ-এসএমপির জানুয়ারি মাসের কল্যাণ সভা রবিবার সকালে পুলিশ লাইন্সের ড্রিল শেডে অনুষ্ঠিত হয়।
এতে সভাপতিত্ব করেন, পুলিশ কমিশনার মো নিশারুল আরিফ। উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) পরিতোষ ঘোষ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অবস) মো শফিকুল ইসলাম, উপ পুলিশ কমিশনার (সদর) মো কামরুল আমিন, উপ পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) ফয়সল মাহমুদ, উপ পুলিশ কমিশনার (ডিবি) তোফায়েল আহমেদ, উপ পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ) মো সোহেল রেজা পিপিএম ও উপ পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ, পিপিএম সহ সকল অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার, সহকারী পুলিশ কমিশনার, সকল থানার অফিসার ইনচার্জ, আরআই পুলিশ লাইন্স ও বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তাগণ।
পুলিশ কমিশনার উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের জিজ্ঞাসাবাদে বিভিন্ন বিষয়ে মতামত গ্রহণ করে শীঘ্রই তা সমাধানে আশ্বস্ত করেন।
তিনি বিগত মাসে পুলিশি কার্যক্রমে সন্তোষ প্রকাশ করে সকলকে ধন্যবাদ জানান।
পুলিশ কমিশনার আইজিপিরি নির্দেশিত পুলিশিং, পুলিশের ইমেজ, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার সংক্রান্ত নির্দেশনাবলী ও শৃঙ্খলা-ড্রেসকোড বজায় রেখে পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালনে দিকনির্দেশনা প্রদান করেন।
তিনি বলেন, ভাল কাজের জন্য যেমনি পুরস্কৃত করা হয় তেমনি কোন পুলিশ সদস্য খারাপ কাজ করলে তাকে অবশ্যই শাস্তি ভোগ করতে হবে।
একই দিন দুপুরে এসএমপি সদার দফতর সম্মেলন কক্ষে পুলিশ কমিশনারের সভাপতিত্বে জানুয়ারি মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সদর ও প্রশাসন) পরিতোষ ঘোষ, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অবস) মো শফিকুল ইসলাম, র‌্যাব-৯ সিলেট, কল্যাণ সভায় উপস্থিত সকল উপ পুলিশ কমিশনারগণ, অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনারগণ, সহকারী পুলিশ কমিশনারগণ ও অফিসার ইনচার্জগণ উপস্থিত ছিলেন।
সভায় সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ তাদের থানা এলাকার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি তুলে ধরেন।
পুলিশ কমিশনার তদন্তাধীন মামলাসমূহ দ্রুত নিষ্পত্তির জন্য এবং বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে আরও বেগবান করার জন্য এসএমপির সকল থানার অফিসার ইনচার্জদের নির্দেশ প্রদান করেন।
তিনি মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি অব্যাহত রাখার উপরও গুরুত্ব আরোপ করেন।
উপস্থিত বিভিন্ন ইউনিটের প্রতিনিধিগণ আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক তাদের মতামত ব্যক্ত করেন।
সভায় মূলতবি মামলাসমূহের দ্রুত নিষ্পত্তি, ওয়ারেন্ট তামিল, রেজিস্ট্রার-পত্র হালনাগাদ রাখা, আইনশৃঙ্খলা প্রয়োগ ও মামলা তদন্তে বিজ্ঞ আদালত ও অন্যান্য পুলিশ ইউনিটের সঙ্গে সার্বিক সমন্বয় রাখা এবং ট্রাফিক বিভাগের যথাযথভাবে মোটরযান আইনে ব্যবস্থা নেওয়া সহ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে পর্যালোচনা করা হয়।
সভায় বিগত মাসে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ পুলিশ অফিসারগণ হলেন, উপ পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ পিপিএম, সহকারী পুলিশ কমিশনার মো শামসুদ্দিন ছালেহ আহমদ চৌধুরী, পিপিএম বার (এসি, কোতয়ালি মডেল থানা), সহকারী পুলিশ কমিশনার মো মহিয়ার রহমান, (অপরাধ, সদর ও প্রশাসন), অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ আলী মাহমুদ, (কোতয়ালি মডেল থানা), ইন্সপেক্টর মোহাম্মদ ইয়াছিন (তদন্ত, কোতয়ালি মডেল থানা), ইন্সপেক্টর মো শফিকুল রহমান (পুলিশ লাইন্স, সদর ও প্রশাসন), ইন্সপেক্টর সৈয়দ মাহবুবুর রহমান (ডিবি), ইন্সপেক্টর মো বাচা মিয়া (প্রসিকিউশন), ইন্সপেক্টর মো এনামুল মনোয়ার (সিটিএসবি), টিআই সরওয়ার মোহাম্মদ পারভেজ (ট্রাফিক বিভাগ), এসআই মো সোহেল রানা (দক্ষিণ সুরমা থানা), এসআই সুমন চক্রবর্তী (ডিবি), এসআই মোহাম্মদ জানু মিয়া (প্রসিকিউশন), এসআই অনন্ত কুমার বর্মণ (গোপনীয় শাখা, সদর ও প্রশাসন), সার্জেন্ট সুবীর তালুকদার (ট্রাফিক বিভাগ), এসআই মো সেলিম মিয়া (সিটিএসবি), এএসআই মো শেখ সাদী (দক্ষিণ সুরমা থানা), এএসআই মো মিজানুর রহমান (সদর ও প্রশাসন), এটিএসআই মো মমিন আল মামুন (ট্রাফিক বিভাগ), এএসআই মো মোশারফ হোসাইন ভূঁইয়া (সিটিএসবি), ড্রাইভার কনস্টেবল মো গোলাম কিবরিয়া সরকার (মটরযান শাখা, সদর ও প্রশাসন)।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

Share Button
January 2022
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
31