NATIONAL
Prime Minister Sheikh Hasina laid emphasis on extracting 'marine resources' from Bangladesh's vast marine area while maintaining friendly relations with neighboring countries for socio-economic progress of the country || প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের আর্থ-সামাজিক অগ্রগতির জন্য প্রতিবেশী দেশগুলোর সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে বাংলাদেশের বিশাল সামুদ্রিক এলাকা থেকে ‘সামুদ্রিক সম্পদ’ আহরণ করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন
সংবাদ সংক্ষেপ
স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে মেধাবী শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করতে হবে : মেয়র আনোয়ারুজ্জামান বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব মিশিগানের সভাপতি জাবেদ সাধারণ সম্পাদক খালেদ খেলাধুলায় জয়-পরাজয়ের চেয়ে অংশগ্রহণ গুরুত্বপূর্ণ : সিনিয়র জনপ্রশাসন সচিব নবীগঞ্জে শাখা বরাক নদী বাঁচাতে ও পরিবেশ রক্ষায় এগিয়ে আসার আহ্বান স্মার্ট পারফরম্যান্স অ্যাওয়ার্ড পেলেন ট্রাভেলস ব্যবসায়ী শামীম আহমেদ উন্নয়ন বঞ্চিত বিশ্বনাথের প্রতিটি ক্ষেত্রে এখন উন্নয়ন হবে : শফিকুর রহমান চৌধুরী বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আন্দোলন-সংগ্রামের পথপরিক্রমায় স্বাধীনতা এসেছে : প্রবাসী কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী কৃষি ব্যাংকের সুবিধাগুলো সাধারণ মানুষের সামনে তুলে ধরতে হবে : প্রতিমন্ত্রী শফিক চৌধুরী ভাষাসংগ্রামী পীর হবিবের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জালালপুরে আলোচনা সভা মহান শহীদ দিবসে পাঠশালার আয়োজনে ভাষাসংগ্রামীর হাতে শিশুদের হাতেখড়ি সিলেট মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে জুয়া খেলার সামগ্রীসহ ২২ জুয়ারি গ্রেফতার ছাতক উপজেলার পঞ্চগ্রাম উচ্চবিদ্যালয়ে মহান শহীদ দিবস পালন মাধবপুরে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত সুনামগঞ্জে আর্ন্তজাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে ভাষা শহীদদের স্মরণ হবিগঞ্জ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত সর্বস্তরে বাংলা প্রচলন ও উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকারে অমর একুশে পালন

উন্নয়ন মেলা শুরু : চলবে তিন দিন : সিলেটে প্রথম দিনেই প্রচণ্ড ভিড়

  • বৃহস্পতিবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ১০টি ব্র্যান্ডিং নিয়ে গৃহিত কার্যক্রম ও সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের সার্বিক অগ্রগতি সম্পর্কে দেশবাসীকে অবহিত করতে সারাদেশে একযোগে তিন দিনব্যাপী চতুর্থ জাতীয় উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে।
প্রধানমন্ত্রী ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় দেশব্যাপী এ আয়োজন উদ্বোধন করেন। এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় ‘উন্নয়নের অভিযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশ’।
সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা মাঠে জেলা প্রশাসন আয়োজিত জাতীয় উন্নয়ন মেলায় প্রথম দিনেই নানা বয়সের মানুষের উপচেপড়া ভিড় জমে উঠে। বেলা বাড়ার সাথে সাথে উৎসাহী মানুষের সংখ্যা বাড়তেই থাকে।
এবারের উন্নয়ন মেলার সিলেটে ১২০টি প্রতিষ্ঠান ১৩৬টি স্টল দিয়েছে। এরমধ্যে ২৭টি প্রতিষ্ঠান সরাসরি সেবা প্রদান করছে সাধারণ মানুষকে। অন্যান্য প্রতিষ্ঠানও কোন না কোনভাবে সেবা দিচ্ছে।
প্রতিটি স্টলে গত ১০ বছরে বাংলাদেশে বিভিন্ন ক্ষেত্রে যে সাফল্য অর্জিত হয়েছে তা তুলে ধরা হচ্ছে। মানুষকে জানানো হচ্ছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রকৃতিকন্যা সিলেট সহ ১০টি ব্র্যান্ডিং নিয়ে গৃহিত কার্যক্রম ও সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের সার্বিক অগ্রগতি সম্পর্কে। উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় অদম্য বাংলাদেশের কাহিনী সবাইকে দারুণভাবে উজ্জীবিত করছে।
উন্নয়ন মেলায় প্রদর্শিত হচ্ছে, সিলেট জেলা প্রশাসন নির্মিত একটি প্রামাণ্যচিত্র। এতে তুলে ধরা হয়েছে প্রকৃতিকন্যা সিলেটের গত এক দশকের উন্নয়ন। জেলা প্রশাসক নুমেরী জামানের সাবলীল বক্তব্যে ফুটে উঠেছে সরকারের সাফল্যগাথা। এছাড়া প্রান্তিক এ জনপদের ইতিহাস-ঐহিত্যও চমৎকারভাবে উঠে এসেছে।
সুনামগঞ্জে সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে।
এ উপলক্ষে সকালে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। জেলা প্রশাসকের কার্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে শোভাযাত্রাটি বের হয়ে শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে সরকারি জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে শেষ হয়।
শোভাযাত্রায় উপস্থিত ছিলেন, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ, সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট শাহানা রব্বানী, পরিকল্পনা কমিশনের আর্থ সামাজিক অবকাঠামো বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব দিলোয়ার বখত, জেলা প্রশাসক আব্দুল আহাদ ও পুলিশ সুপার বরকতুল্লাহ খান।
উন্নয়ন মেলায় সাধারণ মানুষের কাছে সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড তুলে ধরতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ৮৪টি স্টল বসেছে।
সারাদেশের মতো মৌলভীবাজারেও তিন দিনব্যাপী জাতীয় উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে।
এ উপলক্ষে সকালে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক ঘুরে মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উন্নয়ন মেলা প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়।
শোভাযাত্রায় সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দফতর, প্রতিষ্ঠান ও স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীসহ নানা শ্রেণিপেশার মানুষ অংশ নেন।
জেলা প্রশাসন আয়োজিত এবারের উন্নয়ন মেলায় ১১২টি স্টল বসেছে। প্রতিটি স্টলকে সাজানো হয়েছে চমৎকার করে। এছাড়া সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড ও সেবা বিষয়ে ব্যানার ও ফেস্টুনসহ নানা ধরনের প্রচারপত্র রাখা হয়েছে প্রতিটি স্টলে। প্রতিদিন আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন রাখা হয়েছে।
হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় তিন দিনব্যাপী জাতীয় উন্নয়ন মেলা শুরু হয়েছে।
গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উন্নয়ন মেলার উদ্বোধনের পর নবীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়।
শোভাযাত্রাটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। পরে উপজেলা পরিষদ মাঠে উন্নয়ন মেলা প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ-বিন হাসানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, নবীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান আলমগীর চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার আতাউল গণি ওসমানী, ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার নূর উদ্দিন বীর প্রতীক ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল জাহান চৌধুরী।
এবারের উন্নয়ন মেলায় সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন দফতর ও প্রতিষ্ঠান ৪২টি স্টলে সেবা প্রদান করছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More

লাইক দিন সঙ্গে থাকুন

সংবাদ অনুসন্ধান

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯  
স্বত্ব : খবরসবর ডট কম
Design & Developed by Web Nest