লাখাইয়ে প্রেমিকের মরদেহ উদ্ধার : প্রেমিকা সহ আটক ২ জন

Published: 23. Apr. 2019 | Tuesday

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের লাখাই উপজেলায় নিখোঁজের দুইমাস পর কলেজ ছাত্র উজ্জ্বল মিয়ার (২২) মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
সোমবার বিকেলে উপজেলার মেন্দির হাওর থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। উজ্জ্বল মুড়াকরি গ্রামের শাহ আলমের ছেলে। সে মাধবপুর সৈয়দ সাঈদ উদ্দিন কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্র ছিল। এ ঘটনায় উপজেলার ধর্মপুর গ্রামের মঞ্জু মিয়া ও তার মেয়ে ফারজানা আক্তারকে আটক করা হয়েছে। তারা হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেছে বলে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লাহ জানিয়েছেন।
তিনি জানান, ফারজানা হবিগঞ্জ বৃন্দাবন সরকারি কলেজের ২য় বর্ষের ছাত্রী। উজ্জ্বলের সাথে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় থেকে একপর্যায়ে তাদের মাঝে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এর সুবাদে উজ্জ্বল মাঝে মাঝে ফারজানাদের বাড়িতে আসাযাওয়া করত। তাদের মাঝে দৈহিক সম্পর্কও গড়ে উঠে।
কিন্তু উজ্জ্বলের সম্পর্ক ছিল আরো কয়েকজনের সাথে। গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে ফারজানার বাবা-মার অনুপস্থিতে দুজনে একত্রে থাকা অবস্থায় উজ্জ্বলের অন্যান্য সম্পর্কের বিষয়টি ধরা পড়ে যায় ফারজানার কাছে। এর জের ধরেই মসলা বাটার নুড়া দিয়ে প্রেমিকের মাথায় আঘাত করে সে। পরে হাত ও পায়ের রগ কেটে দেয়। মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর মরদেহ বস্তায় ভরে ঘরের মেঝেতে পুঁতে রাখে। পরদিন ঢাকায় গিয়ে বাবা-মাকে বিষয়টি জানালে তারা ফিরে আসেন এবং তার বাবা মরদেহটি মেন্দি হাওরে পুঁতে রাখেন।
এদিকে ২৬ ফেব্রুয়ারি উজ্জ্বলের বাবা থানায় একটি জিডি করেন। ২১ এপ্রিল ফারজানা ও তার বাবাকে আটক করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে তারা হত্যাকাণ্ডের কথা স্বীকার করেন। এই স্বীকারোক্তি অনুযায়ী মরদেহ উদ্ধার করা হয়। শাহ আলম ছেলের লাশ সনাক্ত করেন।

Share Button
May 2019
M T W T F S S
« Apr    
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  

দেশবাংলা

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com