টানা ৩ দিনের সম্মুখযুদ্ধে নবীগঞ্জ মুক্ত হয়েছিল একাত্তরের ৬ ডিসেম্বর

Published: 05. Dec. 2018 | Wednesday

উত্তম কুমার পাল হিমেল : হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলা পকিস্তানি হানাদার বাহিনীর কবলমুক্ত হয়েছিল একাত্তরের ৬ ডিসেম্বর। এ দিনে পশ্চিমাদের হটিয়ে দিয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধারা গুরুত্বপূর্ণ এই জনপদে লালসবুজের পতাকা উড়িয়েছিলেন।
তিন দিনের সন্মুখ যুদ্ধের পর সূর্যোদয়ের কিছুক্ষণ আগে তৎকালীন নবীগঞ্জ থানা সদর থেকে পাক হানাদারদেরকে বিতাড়িত করেন বাংলা মায়ের সূর্যসন্তানরা। এরপর আকাশের দিকে অবিরাম গুলি ছুঁড়ে আর জয়বাংলা রণধ্বনি দিয়ে প্রকম্পিত করে তুলেন চারদিক। বিজয়বার্তা পাওয়া মাত্র স্বাধীনতাকামী হাজার হাজার মানুষও ঘর ছেড়ে বের হয়ে আসেন রাজপথে। অযুত কণ্ঠের সেই বজ্রধ্বনি এখনো ধ্বনিত-প্রতিধ্বনিত হয়।
অল্পক্ষণ পরেই সূর্যোদয়। নতুন সূর্যালোকে সাব সেক্টর অধিনায়ক দেওয়ান মাহবুবুর রব সাদীর নেতৃত্বে থানা ভবনে উত্তোলন করা হয় বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা। এরপর নবীগঞ্জ ডাকবাংলোর সামনে সমবেত হাজারো মানুষের উদ্দেশ্য এ বীর মুক্তিযোদ্ধা আবেগজড়িত কন্ঠে বক্তব্য রাখেন।
নবীগঞ্জ মুক্ত করে মুক্তিবাহিনী ঐ দিন বিকেলে তখনকার জেলা সদর সিলেট মুক্ত অভিযানে যোগ দিতে রওয়ানা দেয়।
নবীগঞ্জ মুক্ত অভিযানে ৪ ডিসেম্বর রাতে কিশোর মুক্তিযোদ্ধা ধ্রুব শহীদ হন এবং কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধা আহত হন।

Share Button
February 2019
M T W T F S S
« Jan    
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728  

দেশবাংলা

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com